চৌগাছায় কপোতাক্ষ নদের ওপর নির্মিত সেতুতে উদ্বোধনের আগেই ভাঙ্গন

19

যশোর(চৌগাছা)প্রতিনিধি:যশোরের চৌগাছায় উপজেলার নারায়াণপুর প্রায় সাত কোটি টাকা ব্যয়ে কপোতাক্ষ নদের ওপর নির্মিত সেতুটির এক পাশে ভাঙন হওয়ায় সেতুটি নদের গর্ভে বিলীন হবার আশঙ্কা দেখা দিয়েছে। এ অবস্থায় সেতুটি জরুরী ভাবে মেরামতের জন্য সংশ্লিষ্ট উদ্ধর্তন কর্তৃপক্ষের কাছে এলাকাবাসী দাবি জানিয়েছেন।
জানা যায়, বর্তমান সরকারের যোগাযোগ মন্ত্রণালয় ব্রিজটি নির্মাণের জন্য ৬ কোটি ৮৭ লাখ ৭৪ হাজার ১৫৬ টাকা বরাদ্দ দেয়। গত শনিবার বিকালে সরেজমিনে দেখা গেছে সেতুর দুই পাশে প্রায় এক কিলোমিটার সড়কের এক পাশ ভেঙে নদের গর্ভে চলে যাওয়ার উপক্রম হয়েছে।
সেতুর কাজ শেষ হওয়ার পর নির্মাণ করা হয় সেতুর দুই পাশের সংযোগ সড়ক। এই সেতুর কাজ শেষে সেতুটি ব্যবহারের জন্য খুলে দেয়া হয়। কিন্তু আনুষ্ঠানিকভাবে সরকারের পক্ষ থেকে উদ্বোধন করা হয়নি সেতুটি। সেতু নির্মাণের কয়েক বছর যেতে না যেতেই সেতুর পূর্ব পাশে রাস্তায় দেখা দিয়েছে ভাঙ্গন। দিন দিন ভাঙ্গনের পরিমাণ বৃদ্ধি পাচ্ছে।
দীর্ঘদিনের স্বপ্নের সেতুটি উপজেলার নারায়ণপুর ও হাকিমপুর ইউনিয়নবাসীসহ এলাকার ৫০ হাজার মানুষের চলাচলের একমাত্র মাধ্যম । এই সেতুর উপর দিয়ে প্রায় লক্ষাধিক মানুষ প্রতিনিয়ত আসা-যাওয়া করে থাকে। বর্তমানে তারা জীবনে ঝুঁকি নিয়ে আসা যাওয়া করছেন।
এ বিষয়ে নারায়ণপুর গ্রামের অহিদুল ইসলাম বলেন হঠাৎ করে সেতুর দুই পাশের সড়ক ভেঙ্গে পাশে পুকুরে পড়েছে। ব্রিজের দুই পাশের সড়কই এখন ঝুঁকিপূর্ণ।
এ বিষয়ে উপজেলা প্রকৌশলী মুনছুর রহমান জানান, সেতুর দু-পাশে সামান্য ক্ষতির খবরটি শুনেছি। জরুরীভাবে খোঁজখবর নিয়ে তা মেরামত করা হবে। তিনি আরো বলেন, এক্ষেত্রে জনগণকেও একটু সচেতন হতে হবে। রাস্তার দুপাশে জনগণ যেন মাটি না কাটে বা রাস্তার ক্ষতি না করে সে ব্যাপারে সকলকে খেয়াল রাখতে হবে।
উল্লেখ্য, এই সেতুটি আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় উপকমিটির সাবেক সহ-সম্পাদক ও বর্তমান যশোর জেলা কমিটির অন্যতম সদস্য এ্যাড: আহসানুল হক আহসানের একান্তিক প্রচেষ্টায় এই সেতুটি নির্মিত হয়।