গাইবান্ধার সাবেক এমপি ও এএসপিসহ ১৩ জনের বিরুদ্ধে হত্যা মামলা

এবিসি বাংলা ডেস্কএবিসি বাংলা ডেস্ক
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  02:50 AM, 09 April 2019

সহকারী কমিশনার (ভুমি) অবিদীয় মার্ডি’র মৃত্যু ছিল পরিকল্পিত হত্যাকান্ড।নিহতের স্ত্রীর সই নিয়ে থানায় দুর্ঘটনায় মৃত্যুর মামলা রেকর্ড করিয়ে ছিলেন অভিযুক্তরা

গোবিন্দগঞ্জ সংবাদদাতা: গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জ উপজেলার সাবেক সহকারী কমিশনার (ভুমি) অবিদীয় মার্ডি’র মৃত্যুর ঘটনায় গোবিন্ধগঞ্জ আসনের সাবেক এমপি, সহকারী পুলিশ সুপার, চিকিৎসক ও থানার ওসিসহ ১৩ জনের বিরুদ্ধে গোবিন্দগঞ্জ সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে হত্যা মামলা আনয়নের আভিযোগ দায়ের করা হয়েছে।

সোমবার বিকেলে গোবিন্দগঞ্জ চৌকি আদালতের বিচারক পার্থ ভদ্রের কাছে নিহতের ভাই স্যামসান মার্ডি এ অভিযোগটি দায়ের করেন। এতে গোবিন্ধগঞ্জ আসনের সাবেক এমপি আবুল কালাম আজাদকে প্রধান আসামি করা হয়েছে। এছাড়াও মামলায় তৎকালীন সময়ে গাইবান্ধার সহকারী পুলিশ সুপার আনোয়ার হোসেন মিয়া, গোবিন্ধগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের ডাক্তার মাহাবুবুর রহমান, গোবিন্দগঞ্জ থানা পুলিশের তৎকালীন অফিসার ইনচার্জ (তদন্ত) মেহেদী হাসান রাসেলসহ ১৩ জনকে আসামি করার বিষয়ে আবেদনে উল্লেখ করা হয়।

আদালতের বিজ্ঞ বিচারক পার্থ ভদ্র আগামী ১২ জুন এ আবেদনের শুনানির তারিখ ধার্য করেন। ওই সিআর পিটিশনে উল্লেখ্য করা হয় অবিদীয় মার্ডি’র মৃত্যুর ঘটনায় তার স্ত্রী শেফালী সরেনের কাছ থেকে সুকৌশলে স্বাক্ষর নিয়ে সেই সময় গোবিন্দগঞ্জ থানায় সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত দেখিয়ে একটি মামলা দায়ের করা হয়। গোবিন্দগঞ্জ চৌকি আদালতের এপিপি মিজানুর রহমান আদালতে মামলা আনয়নের বিষয়টি নিশ্চিত করেন। তিনি বলেন, বিজ্ঞ বিচারকের সিদ্ধান্ত মামলার পরবর্তী পদক্ষেপ হিসেবে গণ্য হবে।

উল্লেখ্য, ২০১৪ সালের ১১ জানুয়ারি সন্ধ্যায় গোবিন্দগঞ্জ উপজেলার তৎকালীন সহকারী কমিশনার (ভূমি) অবিদীয় মার্ডি তার নিজ বাড়ি নওগাঁর ধামইরহাট থেকে গোবিন্দগঞ্জে কর্মস্থলে আসার পথে কাটা এলাকায় গুরুতর আহত হয়ে সংজ্ঞাহীন হন। স্থানীয়রা তাকে সেই অবস্থায় উদ্ধার করে গোবিন্দগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত ডাক্তার তাকে মৃত্যু ঘোষণা করেন।

রংপুর বিভাগ

আপনার মতামত লিখুন :