খুলনায় শিশু ধর্ষণের দায় স্বীকার পুলিশ সদস্য রেজাউলের

28

খুলনা সংবাদদাতা:খুলনায় চতুর্থ শ্রেণির শিশু শিক্ষার্থীকে ধর্ষণের দায় স্বীকার করে আদালতে স্বীকারোক্তি দিয়েছে পুলিশ সদস্য রেজাউল শিকদার (২৩)। মঙ্গলবার দুপুরে খুলনার সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্টেট আদালতে (ঙ অঞ্চল) এই জবানবন্দি রেকর্ড করা হয়। আরও খবর>>খুলনায় শিশু ধর্ষণের অভিযোগে নাটোরের পুলিশ সদস্য গ্রেফতার

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা ও তেরখাদা থানা পুলিশের উপ-পরিদর্শক মো. শফিকুল ইসলাম সাংবাদিকদের এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেওয়ায় আদালতে রিমান্ডের আবেদন জানানো হয়নি।
এরআগে সোমবার বেলা ১১টার দিকে তেরখাদা উপজেলার মোকামপুর গ্রামের আলাম শিকদারের ছেলে রেজাউল শিকাদর প্রতিবেশী শিশুটিকে ঘরে ডেকে নিয়ে ধর্ষণ করে। এ ঘটনায় শিশুটির পিতা তেরখাদা থানায় মামলা দায়ের করেন। রেজাউল তিন বছর আগে পুলিশে যোগ দেন। তিনি নাটোর পুলিশ লাইনে কর্মরত ছিলেন। সম্প্রতি ছুটিতে বাড়িতে এসেছিলেন।
এদিকে গত এক সপ্তাহের ব্যবধানে খুলনা মহানগরীসহ জেলায় তিনটি সংঘবদ্ধসহ চারটি ধর্ষণের ঘটনায় নাগরিক নেতারা উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন। নগরীর খালিশপুরে একটি, ডুমুরিয়ায় দুটি ও তেরখাদায় একটি ধর্ষণের ঘটনা ঘটে।
জনউদ্যোগ খুলনার সদস্য সচিব মহেন্দ্রনাথ সেন বলেন, করোনা প্রাদুর্ভাবে মানুষ যখন জীবন-জীবিকা নির্বাহ করতে হিমশিম খাচ্ছে, তখন এ ধরনের ঘটনা উদ্বেগজনক এসব ঘটনার দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি না হলে অপরাধ প্রবণতা বাড়বে।