খালেদা জিয়া টিকা নিয়েছেন জেনে তথ্যমন্ত্রী বললেন এটা ভাল!

8

এবিসি ডেস্ক:বিএনপি নেতারা টিকা নিয়ে বিভ্রান্তি ছড়িয়েছেন মন্তব্য করে তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রী এবং আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ বলেছেন বেগম খালেদা জিয়া নিয়েছেন, এটা ভালো!’

আজ সোমবার (১৯ জুলাই) দুপুরে রাজধানীর ধানমন্ডিতে আওয়ামী লীগ সভাপতির রাজনৈতিক কার্যালয়ে এক অনুষ্ঠানে মন্ত্রী এসব কথা বলেন। দলের ত্রাণ ও সমাজকল্যাণ সম্পাদক সুজিত রায় নন্দীর সভাপতিত্বে প্রধানমন্ত্রীর ঈদ উপহার ও করোনা সুরক্ষা সামগ্রী বিতরণে অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। এতে তথ্যমন্ত্রী প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন।

আওয়ামী লীগের ত্রাণ ও সমাজকল্যাণ-বিষয়ক উপকমিটি এবং ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রণালয়ের সংসদীয় স্থায়ী কমিটির চেয়ারম্যান এ কে এম রহমতুল্লাহ, স্বাস্থ্য ও জনসংখ্যা-বিষয়ক সম্পাদক ডা. রোকেয়া সুলতানা প্রমুখ এ সময় বক্তব্য রাখেন।

ড. হাছান বলেন, ‘আজকে আমরা দেখতে পেলাম, বেগম খালেদা জিয়াও টিকা নিচ্ছেন। তার দলের নেতারা এই টিকা নিয়ে অনেক বিভ্রান্তি ছড়িয়েছিলেন। আর সেই নেতারাই পরে টিকা নিয়েছিলেন। আজকে বেগম খালেদা জিয়াও টিকা নিচ্ছেন। এ জন্য তাকে ধন্যবাদ জানাই। তিনি যেন টিকা গ্রহণ করে পুরোপুরি সুস্থ থাকেন, করোনা মহামারি থেকে মুক্ত থাকেন, সেটাই আমরা প্রত্যাশা করি, বিধাতার কাছে প্রার্থনা করি।’

বিএনপি’র উদ্দেশে আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক বলেন, ‘আপনারা টিকা নিয়ে বিভ্রান্তি ছড়িয়েছিলেন। এখন বেগম খালেদা জিয়াসহ সবাই টিকা গ্রহণ করছেন। অতীতে বিভ্রান্তি ছড়ানোর জন্য জাতির কাছে আপনাদের ক্ষমা চাওয়া উচিত বলে জনগণ মনে করে।’

‘অ্যাস্ট্রাজেনেকার যে টিকা ইউরোপের মানুষও নিচ্ছে সেই টিকা দেশে আনার সময় বিএনপির পক্ষ থেকে বলা হয়েছিল, সেটা কোনও কাজ করবে না। এমনকি এটা নিলে স্বাস্থ্যঝুঁকির সম্ভাবনা আছে—এ কথা বলে তারা জনগণকে বিভ্রান্ত করার চেষ্টা চালিয়েছে’ মনে করিয়ে ড. হাছান বলেন, ‘পরে দেখতে পেলাম তারাই আবার টিকা নিলেন, কেউ কেউ গোপনে, আবার কেউ কেউ প্রকাশ্যে। আবার কেউ কেউ বললেন, এই টিকা নিয়ে খুব আরামবোধ করছেন।’

ইতোমধ্যেই বিএনপির শীর্ষস্থানীয় নেতৃবৃন্দের বেশির ভাগই টিকা গ্রহণ করেছেন উল্লেখ করে তথ্যমন্ত্রী বলেন, ‘কেউ কেউ প্রথম ডোজ নিয়েছেন, কেউ কেউ দ্বিতীয় ডোজও নিয়েছেন, সরকারের কাছে সেই তালিকা আছে।’

করোনা মহামারি প্রতিরোধে সরকারের কর্মযজ্ঞ তুলে ধরে তিনি বলেন, ‘আওয়ামী লীগ সরকার দেশের সব মানুষকে স্বাস্থ্য সুরক্ষা দেওয়ার লক্ষ্যে কাজ করছে। প্রধানমন্ত্রী ঘোষণা করেছেন দেশের ৮০ শতাংশের বেশি মানুষকে টিকা দেওয়া হবে। আমাদের এই টিকা সব মানুষের জন্য। আমরা বিএনপির সব নেতৃবৃন্দ, কর্মীদেরও টিকা দেবো। আর তারা যদি আগে নিতে চান, সে ব্যবস্থাও গ্রহণ করা হবে। দয়া করে মানুষের মধ্যে আর বিভ্রান্তি ছড়াবেন না।’

বিএনপিকে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের কাছ থেকে শিক্ষা গ্রহণের আহ্বান জানিয়ে এ সময় ড. হাছান মাহমুদ বলেন, ‘কীভাবে প্রতিদিন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ জনগণের পাশে থাকছে, স্বাস্থ্যসুরক্ষা ও খাদ্য সামগ্রী কীভাবে দলের কেন্দ্রীয় পর্যায় থেকে জেলায় এবং সেখান থেকে উপজেলা, ইউনিয়ন হয়ে জনগণের কাছে পৌঁছে দেওয়া হচ্ছে, সেটি আপনারা দেখুন। আপনাদের শুধু সমালোচনা করতে দেখতে পাচ্ছি, কিন্তু মানুষকে ত্রাণ দিতে দেখা যাচ্ছে না; সুতরাং আওয়ামী লীগের কাছ থেকে শিক্ষা গ্রহণ করুন।’

করোনা পরিস্থিতির মধ্যে ঈদে বাড়ি যাওয়ার পথে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার জন্য জনগণের প্রতি অনুরোধ জানান মন্ত্রী। তিনি বলেন, ‘নিজের, পরিবারের ও আশেপাশের মানুষের সুরক্ষার জন্য এবং সর্বোপরি দেশের সবার সুরক্ষার জন্য আমাদের প্রত্যেকের নিজের সুরক্ষা প্রয়োজন।’

অনুষ্ঠানে ইসলামিক ফাউন্ডেশন, আঞ্জুমান মুফিদুল ইসলাম, ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটিসহ বিভিন্ন পেশাজীবী সংগঠনের প্রতিনিধিদের হাতে প্রধানমন্ত্রীর ঈদ উপহার ও করোনাসুরক্ষা সামগ্রী তুলে দেন অতিথিবৃন্দ।

সূত্র:বাংলাট্রিবিউন