কালীগঞ্জে নামাজ পড়ে বাইসাইকেল জিতে নিলো ৭ শিশু

9

কালীগঞ্জ(ঝিনাইদহ)প্রতিনিধি:ঝিনাইদহের কালীগঞ্জে নামাজ পড়াতে উদ্বুদ্ধ করতে সাত শিশুকে সাইকেল উপহার দেয়া হয়েছে। এছাড়া ১০ শিশুকে জায়নামাজ ও একটি করে নামাজ শিক্ষা বই ও মগ দেয়া হয়। সোমবার দুপুরে যোহর নামাজ বাদ কালীগঞ্জ উপজেলা জামে মসজিদ থেকে এই সাইকেল শিশুদের হাতে তুলে দেন ঝিনাইদহ-৪ আসনের সংসদ সদস্য আনোয়ারুল আজিম আনার। সাইকেল বিতরণ অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন, কালীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার সাদিয়া জেরিন ও উপজেলা জামে মসজিদের ইমাম মাওলানা রুহুল আমিনসহ মুসল্লিরা।

সম্প্রতি ঝিনাইদহের কালীগঞ্জ উপজেলা জামে মসজিদ কমিটি ঘোষণা করে কোন শিশু একাধারে ৪০ দিন পাঁচ ওয়াক্ত মসজিদে জামায়াতে নামাজ আদায় করলে তাকে একটি সাইকেল দেয়া হবে। সাথে তার অভিভাবককে এশা ও ফজরের নামাজ ছেলের সাথে জামায়াতে পড়তে হবে। এরপর নির্ধারিত দিন থেকে ১৭ জন শিশু প্রতিযোগীতায় অংশ নেয়। যাদের প্রত্যেকের বয়স অনুর্ধ্ব ১০। শেষ পর্যন্ত সাত শিশু ও তার অভিভাবক শর্ত পূরণ করতে পারায় এ সাইকেল উপহার দেয়া হয়েছে। এছাড়া প্রতিযোগীতায় অংশ নেওয়া বাকি ১০ শিশুকে বই, মগ ও জায়নামাজ দেয়া হয়।
সাইকেল পেয়ে মাহদি মাসুম নামের এক শিশু জানায়, আমি সাইকেল পেয়ে খুবই খুশি। আমি আর কখনোই নামাজ ছাড়বো না। আহম্মেদ রেদুয়ান নামের অপর শিশু জানায়, আকজের সাইকেলটি আমার জীবনের সবথেকে বড় উপহার। আমি এমন খুশি আর কখনোই হয়নি।
উপজেলা জামে মসজিদের ইমাম মাওলানা রুহুল আমিন জানান, বর্মমান সময়ে আকাশ সাংস্কৃতির ছোয়ায় আমাদের শিশুরা ধর্মীয় ও নৈতিক শিক্ষা থেকে পিছিয়ে পড়ছে। তাই আমরা শিশুদের নামাজের প্রতি আগ্রহী করে তুলতে এমন ঘোষনা দিয়েছিলাম। এজন্য পাঁচ সদস্যের একটি কমিটি গঠন করা হয়, যে কমিটি এ ৪০ দিন তাদের পর্যবেক্ষণ করে।
অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি তার বক্তব্যে বলেন, আমি আমার রাজনৈতিক জীবনে বহু সামাজি সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে যোগ দিয়েছি। তবে এমন অনুষ্ঠান আমি দেখিনি। এটাই আমার জীবনের শ্রেষ্ঠ অনুষ্ঠান। এমন অনুষ্ঠানে উপস্থিত হতে পেরে আনন্দিত।