কালিয়ায় ছেলের পর বৃদ্ধ মাকে পুড়িয়ে হত্যা:গ্রেফতার নেই

29

কালিয়া (নড়াইল) প্রতিনিধি:নড়াইলের কালিয়া উপজেলার পিরোলী ইউনিয়নের জামরিলডাঙ্গা গ্রামে বয়োবৃদ্ধা সালেহা বেগমকে (৮০) পুড়িয়ে হত্যার ২৪ ঘন্টা পার হলেও দুর্বৃত্তরা রয়েছে ধরা-ছোঁয়ার বাইরে। এনিয়ে স্থানীয়দের মধ্যে উত্তেজনা বিরাজ করছে।

শুক্রবার রাত ১টার দিকে নিজ বাড়ির বারান্দার একটি কক্ষে ঘুমন্ত অবস্থায় এই বৃদ্ধাকে আগুনে পুড়িয়ে নৃশংসভাবে হত্যার ঘটনা ঘটে। নিহত সালেহা জামরিলডাঙ্গা গ্রামের নূর মোহাম্মদ খন্দকারের স্ত্রী।
স্থানীয়ভাবে জানা যায়, সালেহা বেগম শুক্রবার রাতের খাবার খেয়ে ঘরের বারান্দায় ঘুমিয়ে ছিলেন। গভীর রাতে দুর্বৃত্তরা ঘুমন্ত অবস্থায় আগুন দিয়ে সালেহাকে পুড়িয়ে হত্যা করে। প্রায় ৮ মাস আগে (২০২০ সালের সেপ্টেম্বরের ২৬ তারিখে) জামরিলডাঙ্গা গ্রামের প্রতিপক্ষরা আরিফ খন্দকার নামে তার এক ছেলেকে কুপিয়ে হত্যা করে। এ নিয়ে দু’পক্ষের মধ্যে হত্যাসহ একাধিক মামলা রয়েছে। আরও খবর>>নড়াইলের ছেলের পর এবার তার বৃদ্ধা মাকে পুড়িয়ে হত্যা

পরিবারের অভিযোগ, আরিফ খন্দকারের খুনি কাস্টমস অফিসার আকসির মোল্যা দলবল নিয়ে শুক্রবার রাতে সালেহার বাড়িতে এসে হুমকি দেয়। প্রতিপক্ষের লোকেরা চলে যাবার পর বারান্দায় ঘুমন্ত ছালেহা বেগম আগুনে ছাই হয়ে যান। তিন বছর আগে জটিল রোগে আক্রান্ত হয়ে পক্ষাঘাতগ্রস্ত ছালেহা তার নিজ বসত ঘরের বারান্দায় ঘুমাতেন। মৃত ছালেহার ছেলে, পুত্রবধূ ও কন্যাসহ পরিবারের অভিযোগ, অরিফ খন্দকারের হত্যাকারিরা এবার তার মা ছালেহাকে পুড়িয়ে হত্যা করেছে। নড়াইলের পুলিশ সুপার প্রবীর কুমার রায়সহ জেলার পুলিশ ও গোয়েন্দা কর্মকর্তারা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন ।
এ ব্যাপারে পুলিশ সুপার প্রবীর কুমার রায় বলেন, বয়োবৃদ্ধ সালেহা বেগমকে আগুনে পুড়িয়ে মারার বিষয়টি স্পর্শকাতর। কী কারণে, কে বা কারা এ ঘটনা ঘটিয়েছে, তা অধিকতর তদন্ত করে দেখা হচ্ছে। সন্দেহভাজনদের জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। এর আগেও এ এলাকায় অনেকগুলো মামলা রয়েছে।
এদিকে সর্বশেষ পাওয়া তথ্যমতে, পুলিশ এখনো খুনিদের গ্রেফতার করতে পারেনি। এনিয়ে স্থানীয়দের মধ্যে চাপা উত্তেজনা বিরাজ করছে।