কাজে লাগলো না সাকিবের চমক

এক চারের মারে ১২ বলে ৯ রানের বেশি করতে পারেননি সাকিব

কাজে লাগলো না সাকিবের চমক

আজ (শুক্রবার) ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে চমক হিসেবে নাইমের সঙ্গে পাঠিয়ে দেয়া হয়েছিল সাকিব আল হাসানকে। তবে কাজে লাগেনি সাকিবের চমক। পাওয়ার প্লে শেষ হওয়ার আগেই সাজঘরে ফিরে যান সাকিব। তিনি একাই নন, পাওয়ার প্লে শেষ হওয়ার আগে সমাপ্তি ঘটেছে আরেক ওপেনার নাইম শেখের ইনিংসেরও। এই প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত ছয় ওভারে বাংলাদেশের সংগ্রহ ২ উইকেটে ২৯ রান।

ওয়েস্ট ইন্ডিজের করা ১৪২ রানের জবাবে খেলতে নেমে শুরুতেই চমক দিয়েছে বাংলাদেশ ক্রিকেট দল। প্রায় ১৫ বছরেরও বেশি সময়ের আন্তর্জাতিক ক্যারিয়ারে প্রথমবারের মতো ওপেনিংয়ে নামানো হয়েছে সাকিবকে। এরআগে কখনও ইনিংসের সূচনা করতে দেখা যায়নি সাকিবকে।

আজ ক্যারিবীয়দের বিপক্ষে বাঁচা-মরার লড়াইয়ে প্রথমবারের মতো এ কঠিন দায়িত্বটিই নিজের কাঁধে তুলে নেন বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার। চলতি টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে প্রথম পাঁচ ম্যাচে বাংলাদেশের উদ্বোধনী জুটির সংগ্রহ ছিল যথাক্রমে ৮, ১১, ০, ৪০ ও ১৪ রান।

লিটন-নাইমের উদ্বোধনী জুটি সে অর্থে জমেনি একটি ম্যাচেও। এ কারণেই হয়তো আজ (শুক্রবার) ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে লিটন দাসকে ব্যাটিং অর্ডারে নিচে পাঠিয়ে সাকিবকে আনা হয় ওপেনিংয়ে।

কিন্তু ইনিংসের পঞ্চম ওভারে সাজঘরে ফেরার আগে এক চারের মারে ১২ বলে ৯ রানের বেশি করতে পারেননি সাকিব। আন্দ্রের রাসেলের স্লোয়ার বুঝতে না পেরে জেসন হোল্ডারের হাতে ক্যাচ তুলে দেন তিনি। পরের ওভারে অগ্রজ সতীর্থের দেখা পথে হাঁটেন নাইমও।

আগের ওভারে সাকিবের ক্যাচ নেয়া হোল্ডার এবার বল হাতে সাজঘরে ফেরান নাইমকে। অফস্ট্যাম্পের বাইরের বলে ইনসাইড এজে বোল্ড হন ১৯ বলে ১৭ রান করা নাইম। এখন তৃতীয় উইকেটে জুটি বেঁধেছেন লিটন দাস ও সৌম্য সরকার।

চলতি টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে বাংলাদেশের প্রথম ম্যাচে ওপেনিংয়ে নেমেছিলেন লিটন দাস ও সৌম্য সরকার। পরের চার ম্যাচে ইনিংস সূচনায় দেখা যায় লিটন দাস ও মোহাম্মদ নাইম শেখকে।

খেলা

আপনার মতামত লিখুন :