অক্সিজেন সরবরাহে বাধা দিলে ফাঁসি দেয়া হবে-দিল্লির হাই কোর্ট

41

কোভিড রোগীদের অক্সিজেন সরবরাহে বাধা দিলে কেন্দ্র, রাজ্য বা স্থানীয় স্তরের কোনো আমলাকেই ছাড় দেয়া হবে না বলে জানিয়েছে দিল্লির হাই কোর্ট। প্রয়োজনে তাকে ফাঁসিতে ঝোলানো হবে বলেও হুঁশিয়ারি দিয়েছে আদালত।

শনিবার ভারতের কোভিড সংক্রমণের দ্বিতীয় তরঙ্গকে ‘সুনামি’ আখ্যা দিয়ে দিল্লি হাই কোর্ট একটি মামলার পর্যবেক্ষণে জানায়, হাসপাতালগুলিতে অক্সিজেন সরবরাহ পর্যাপ্ত পরিমাণে হচ্ছে না। সেই সরবরাহে ব্যাঘাত ঘটানো হলে কেন্দ্রীয় বা রাজ্য সরকারি কর্মী অথবা স্থানীয় প্রশাসনের কোনও কর্তাব্যক্তিকেই ছে়ড়ে কথা বলা হবে না।

গত এক সপ্তাহ ধরে ভারতে প্রতিদিন সংক্রমিত হচ্ছে ২ লাখের বেশি আর মৃত্যু হচ্ছে দুই হাজারের বেশি মানুষের। গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন আরও দুই হাজার ৬২৪ জন। এটিই এখন পর্যন্ত দেশটিতে একদিনে সর্বোচ্চ মৃত্যু। করোনায় এ পর্যন্ত ভারতে মারা গেছেন এক লাখ ৮৯ হাজার ৫৪৪ জন। একই সময়ে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত আরও তিন লাখ ৪৬ হাজার ৭৮৬ জনকে শনাক্ত করা হয়েছে। এটিই এখন এখন পর্যন্ত দেশটিতে ও বিশ্বে একদিনে সর্বোচ্চ শনাক্ত। ভারতে মোট এক কোটি ৬৬ লাখ ১০ হাজার ৪৮১ জন শনাক্ত হয়েছেন। সংক্রমণের দিক থেকে বিশ্বের মধ্যে ভারতের অবস্থান বর্তমানে দ্বিতীয়তে।

গতকাল দিল্লির জয়পুর গোল্ডেন হসপিটালে অক্সিজেনের ঘাটতিতে ২৫ জন কোভিড রোগীর মৃত্যু হয়েছে। শনিবার সকালেই বাটরা হসপিটালের পক্ষ থেকে জানানো হয় ৩০০ জন কোভিড রোগীর শয্যা রয়েছে। অথচ হাসপাতালের কাছে খুব বেশি হলে ২০ মিনিট চালানোর মতো অক্সিজেন মজুত রয়েছে। এই পরিস্থিতিতে কোভিড রোগীদের বাঁচাতে অক্সিজেন পাঠানোর জন্য প্রশাসনের কাছে আর্জি জানিয়েছেন হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। এর পরিপ্রেক্ষিতে শনিবার দিল্লি হাই কোর্ট কেন্দ্রের কাছে জানতে চেয়েছে, ঠিক কবে প্রতিশ্রুতি মতো ৪৮০ মেট্রিক টন ওজনের অক্সিজেন পৌঁছবে দিল্লি সরকারের কাছে।