ট্রেনে ‘নির্বাচন যাত্রা’য় ওবায়দুল কাদের

221

নেতাকর্মীদের চাঙা এবং সরকারের উন্নয়ন কার্যক্রম জনগণের কাছে তুলে ধরতে উত্তরাঞ্চল সফরে গেলেন ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের।

বেশ কয়েকজন কেন্দ্রীয় নেতাকে নিয়ে শনিবার সকাল ৮টায় নীলফামারীগামী ‘নীলসাগর এক্সপ্রেস’ চাপেন তিনি।

কমলাপুর স্টেশন থেকে রওনা হওয়ার আগে কাদের সাংবাদিকদের বলেন, “এই যাত্রা আমাদের নির্বাচনী যাত্রা। এই যাত্রা আমাদের অব্যাহত থাকবে।”

তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উন্নয়ন বার্তা তৃণমূলে পৌঁছে দেওয়ার জন্যই এই সফর।

“সামনে নির্বাচন, প্রতিদ্বন্দ্বিতা পূর্ণ হবে। প্রস্তুতি সেভাবেই নিতে হবে। অভ্যন্তরীণ কোনো সমস্যা থাকলে তা নিরসন করা হবে। আমাদের এই যাত্রা তৃণমূল নেতাকর্মীদের চাঙা করবে।”

এই সফরের সার্বিক ব্যবস্থাপনার দায়িত্বে আছেন আওয়ামী লীগের রাজশাহী বিভাগের দায়িত্বপ্রাপ্ত সাংগঠনিক সম্পাদক খালিদ মাহমুদ চৌধুরী।

তিনি সাংবাদিকদের বলেন, ঢাকা থেকে নীলফামারী যাওয়ার পথে টাঙ্গাইল, পাবনার ঈশ্বরদী, নাটোর, বগুড়ার শান্তাহার, জয়পুরহাট, জয়পুরহাটের আক্কেলপুর, দিনাজপুরের বিরামপুর, ফুলবাড়ি, পার্বতীপুর ও নীলফামারীর সৈয়দপুর স্টেশনে পথসভা হবে।

আওয়ামী লীগ নেতারা জানান, স্বাভাবিক সময়ে এই ট্রেনের যাত্রাবিরতি ৩ থেকে ৪ মিনিট হলেও পথসভা উপলক্ষে নীলসাগর এক্সপ্রেসের যাত্রাবিরতি হবে ১০ মিনিট। এই যাত্রা বিরতিতেই ওবায়দুল কাদের বক্তব্য দেবেন।

যার অর্থ দাঁড়ায়, সড়ক পরিবহনমন্ত্রীর নেতৃত্বে ক্ষমতাসীনদের এই কর্মসূচির কারণে নীলসাগর এক্সপ্রেসের যাত্রীদের গন্তব্যে পৌঁছতে অন্য সময়ের চেয়ে দেরি হবে।

ওবায়দুল কাদের জানান, এই ট্রেন যাত্রার মতো নৌ ও সড়ক পথেও অচিরেই তাদের সফর হবে।

“আগামী ১৩ সেপ্টেম্বর লঞ্চ যোগে নির্বাচনী সফর করব আমরা। এরপর বাই রোডে আমাদের চট্টগ্রাম, ময়মনসিংহ, কিশোরগঞ্জ যাওয়ার কথা রয়েছে।”

“তৃণমূলের মানুষ যাতে বিএনপি-জামায়াতের গুজবের রাজনীতির বিষয়ে বিষয়ে সচেতন হয়, সে বিষয়ে দলের এই সাংগঠিক কার্যক্রম গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে,” আশা প্রকাশ করেন তিনি।

ট্রেন সফরে আওয়ামী লীগ নেতাদের মধ্যে রয়েছেন যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর কবির নানক, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক হাছান মাহমুদ, সাংস্কৃতিক সম্পাদক অসীম কুমার উকিল, সাংগঠনিক সম্পাদক আহমদ হোসেন, বি এম মোজাম্মেল হক, আবু সাঈদ আল মাহমুদ স্বপন, খালিদ মাহমুদ চৌধুরী, উপ দপ্তর বিপ্লব বড়ুয়া।